১২ টি কটু কথা যা ভারতীয় শাশুড়িরা নিজের বৌদের প্রায়ই বলেন

ভারতীয় টেলিভিশান ইন্ডাস্ট্রি শাশুড়ি বৌয়ের গল্পে মজেছে তার কারন আছে। ভারতের মেয়েরা যদিও দেশের জন্য মেডাল জিতছে, একটা সম্পর্ক যেটা কিছুতেই বদলাচ্ছে না সেটা হল শাশুড়ি বৌয়ের।

আর আমাদের সমাজ যতই উন্নতি করুক, বেশীরভাগ শাশুরিই পুত্রবধূকে বাইরের লোক বা বাড়ির ঝি বলে মনে করে। ভারতীয় শাশুড়িরা ভীষণ নিষ্ঠুর হতে পারে বিশেষত নিজের পুত্রবধূর সাথে কথা বলার সময়।

পুত্রবধূরা নিজের শাশুড়ির থেকে এই কথা গুলি কখন না কখন নিশ্চয় শুনে থাকবে!

১। তুমি বিশ্বের সবচেয়ে ভাগ্যবান মেয়ে কারন আমার ছেলের সাথে তোমার বিয়ে হয়েছে

আমি নিশ্চিত যে প্রায় সব পুত্রবধূই এই কথাটি নিজের শাশুড়ির কাছে বহুবার শুনেছে। আপনি যতই সুন্দর বা বুদ্ধিমতী হন, আপনাকে এটা শুনতে হবে যে আপনি কিছুই জানেন না এবং আপনাকে নিজের ভাগ্য কে ধন্যবাদ জানান উচিত যে আপানার বিয়ে হয়েছে তাঁর ছেলের সাথে এবং এই মর্যাদাপূর্ণ পরিবারে।

২। তুমি আমার মেয়ে আমার পুত্রবধূ নও

saasbahuserial2

এই বাক্যটা অস্ত্রের মত ব্যাবহার করা হয় আপনাকে কাজ করাবার সময়। অথচ সত্য এটাই যে তিনি আপনাকে কখনই মেয়ের মত আদর যত্ন করবেন না, আমি যতই তাঁর সাথে ভাল ব্যবহার করুন না কেন!

৩। তুমি রাঁধতে যান না

আপনার যদি কয়েক বছর বিয়ে হয়েছে, আপনি হ্য়ত এই বাক্যটি হাজার বার শুনে নিয়েছেন, যদিও আপনি দারুণ রান্না করেন। আসল কথা হল আপনি আপনার শাশুড়ির মতন রান্না কখনই করতে পারবেন না, তাই চেষ্টা করে সময় নষ্ট করবেন না।

৪। আমার মেয়ের থেকে শেখ কি করে ভাল পুত্রবধূ হতে হয়

এ কথাটি সব শাশুড়িই বলে যার মেয়ে আছে। তাঁর জন্য, তাঁর মেয়েই এক আদর্শ পুত্রবধূ, যেহেতু তিনি কখনই আপনাকে তাঁর মেয়ের মতন ভালবাসবে না তাই আপনি কখনই ভাল হবেন না। যদিও, তিনি আপনাকে রোজই মনে করাবেন যে তাঁর মেয়ে কত ভাল পুত্রবধূ।

৫। আমি নিজেই ঘর সামলাতাম। তোমার ঝি কেন দরকার

এটা আরেকটা রোজকার বিদ্রূপ যেটা পুত্রবধূদের সুনতে হয়, বিশেষ করে আপনার যদি একটার বেশি কাজের লোক আছে।

৬। ঘরের কাজ করতে তোমার এত অভিযোগ কিসের? এটা তো তোমারই ঘর।

bahu

সব গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপারে আপনি বাইরের লোক এবং আপনার মতামত জরুরি নয়, কিন্তু ঘরকন্নার ব্যাপারে সে নিয়ম লাগু নয়। আর আপনার অভিযোগ করার তো উপায় নেই।

৭। বাপের বাড়ি যাবার কি দরকার? গত সপ্তাহেই তো গেছিলে।

কোনও শাশুড়ি বৌয়ের বাপের বাড়ি যাওয়া পছন্দ করে না, তাই এই প্রশ্নটির সম্মুখীন আপনি বহুবার হবেন।

৮। তোমার মা কি তোমাকে কিছুই সেখাইনি?

ভারতীয় পুত্রবধূ হিসেবে আপনাকে সব জানতে হবে আবার কিছু জানাও চলবে না! না হলেই তৈরি থাকুন এই কথাটি বারবার শোনার জন্য।

৯। তোমার বাচ্চার রঙ, বুদ্ধি এবং ভাল স্বভাব আমার পরিবারের থেকে পাওয়া

maxresdefault-2

সবসময় মনে রাখবেন আপনার বাচ্চার যাবতীয় গুণ আপনার স্বামীর মর্যাদাপূর্ণ পরিবারের থেকে পাওয়া, আপনি যতই বুদ্ধিমতী, কর্মঠ, এবং ভাল স্বভাবের হন না কেন!

১০। চাকরি করার কি দরকার? তুমি তোমার বাচ্চাকে ভালবাস না?

মহিলাদের বাড়ির বাইরে, কর্মক্ষেত্রে যথেষ্ট চাপ পেতে হয়। তার ওপর আবার বাড়িতেও কথা শুনতে হয় যা খুবই নিষ্ঠুর। আপনি চাকরি করেন কারন আপনি নিজের বাচ্চাকে ভালবাসেন না!

১১। তুমি সুধু আমার ছেলের টাকা ওড়াতে যান

আপনি যদি চাকুরীরতা নন তবে আপনি সুধু এই কথাটিই শুনবেন। আপনি সুধু বাড়িতে বসে তাঁর ছেলের টাকা বিউটি পার্লার ও শপিং করে উড়িয়ে দিচ্ছেন।

১২। বাইরে খাব কেন? তুমি কি আমাদের পরিবারের জন্য একবারও ভাল করে রান্না করবে না?

বাড়িতে সবসময় উপভোগ্য খাবার বানাতে প্রস্তুত থাকবেন। বাইরে খাবার খাওয়া চলবে না কারন তার মানেই আপনি আপনার স্বামীর টাকা নষ্ট করছেন।

শেষে আমরা এই বলব যে অভিযোগ করে সময় নষ্ট করবেন না, এই ধরনের উক্তিগুলি কে গুরুত্ব দেবেন না।

Source: theindusparent