হে ঈশ্বর! শাহরুখ খান "ভয়ভীতা" কন্যা সুহানার কাছ থেকে একটি ফোন পেয়েছিলেন যা তাঁকে ক্রোধোন্মত্ত করে তোলে!

lead image

"তুমি কি আমাকে নিয়ে যেতে পারবে, আমি আটকে আছি!"

তারা এটা পছন্দ করুক বা না করুক, তারকাদের বাচ্চাদের সর্বদা বহু সংবাদ-মাধ্যমের নজরে এবং অহেতুক মনোযোগের মধ্যে থাকতে হয়।

যখন তারা তাদের যশস্বী মা-বাবাদের সঙ্গে শহরে কোনও পার্টি বা অনুষ্ঠানে যায়  এবং অনবরত তাদের ফটো তোলা হয়, সেটা ঠিক আছে কিন্তু কখনও কখনও কিছু ঘটনা হাতের বাইরে চলে যায়।

শাহরুখ খানের সপ্তদশ বর্ষীয়া কন্যার সঙ্গে এরকমই কিছু ঘটেছিল যখন সে সলমান খানের টিউবলাইট ছবির প্রিমিয়ারে উপস্থিত হয়েছিল।

অনুষ্ঠানস্থলে চিত্র-সাংবাদিকেরা আক্ষরিক অর্থেই তাকে ভীড় করে ঘিরে ধরেছিল এবং বেচারা মেয়েটি এত ভয় পেয়েছিল যে আতঙ্কিত হয়ে সে তার বাবাকে এস ও এস ফোন করে ওখানে এসে তাকে বাঁচাতে বলেছিল।

সুহানা ভীড়াক্রান্ত হয়েছিল!!!

src=https://www.theindusparent.com/wp content/uploads/2017/06/suhana khan.jpg হে ঈশ্বর!  শাহরুখ খান "ভয়ভীতা" কন্যা সুহানার কাছ থেকে একটি ফোন পেয়েছিলেন যা তাঁকে ক্রোধোন্মত্ত করে তোলে!

পাপারাৎজিরা আক্ষরিক অর্থে সুহানাকে ঘিরে ধরেছিল এবং তাকে যেতে দিচ্ছিল না, এতটাই যে তার মনে হয়েছিল যে সে ফাঁদে পড়ে গেছে।

প্রচন্ড ভয়ে বাবা শাহরুখ খানকে ফোন করা ছাড়া সুহানার আর কোনও বিকল্প ছিল না, "বাবা, আমাকে নিয়ে যাও, আমি আটকে আছি।"

শাহরুখ নেটওয়ার্ক 18 এর আমন্ত্রণকর্তা রাজীব মসন্দকে এক সাক্ষাত্কারে এই ঘটনার বিস্তারিত তথ্য দিয়েছেন।

"তারা সবাই আপনার কথা শুনবে কারণ আমি তাদের ২৫ বছর ধরে জানি।  টিউবলাইট এর প্রদর্শনীতে সে আমার সাথে যায়নি।  সে আমাকে বলল যে আমি নিজেই যাচ্ছি।  আমি তাকে বলেছিলাম যে সলমানের সাথে দেখা করার জন্য আমিও সেখানে যাচ্ছি এবং আমিই তোমাকে নিয়ে যাব।  আর তারপর তো তাকে  ফোন করে আমাকে বলতে হল, 'তুমি আমাকে নিয়ে যেতে পারবে, আমি আটকে আছি',"  সাক্ষাৎকারে শাহরুখ বলেন।

src=https://www.theindusparent.com/wp content/uploads/2016/06/SRK with wife Gauri daughter Suhana and son Aryan at Gauri Khan’s designer store 630x507.jpg হে ঈশ্বর!  শাহরুখ খান "ভয়ভীতা" কন্যা সুহানার কাছ থেকে একটি ফোন পেয়েছিলেন যা তাঁকে ক্রোধোন্মত্ত করে তোলে!

এই ঘটনায় বাদশা খান রাগে অগ্নিশর্মা হয়ে গিয়েছিলেন।  শাহরুখ আরও বলেন যে তার বাচ্চাদের ছবি তুললে তাঁর কোনও সমস্যা নেই, কিন্তু মিডিয়াকেও সেটা বুঝতে হবে।

"তারা আমার ছবি তুলছে, ঠিক আছে।  আমার অনুরোধ, আমি বুঝি যে পারি আমরা মিডিয়ারই অংশ। আমি আমার বাচ্চাদের এবং আমার ছেলেকেও বলেছি ব্যাপারটা বুঝতে। আমি তাদের বলেছি যে যদি ফটোগ্রাফার এসে দাঁড়ায়, তাঁদের কথা শুনতে, ছবি তুলতে দিতে এবং তারপর জিজ্ঞাসা করতে যে 'এবার কি আমি যেতে পারি',"  তিনি আরও বলেন।

আপনি আসলে দেখতেই পেয়েছেন যে সুহানার চোখ দিয়ে আক্ষরিক অর্থেই জল গড়াচ্ছিল কারণ ফটোগ্রাফারেরা তাকে ঘিরে রেখেছিলেন এবং মেয়েটিকে যেতে দিচ্ছিলেন না!

শাহরুখ যখন বিনয়বশত বলেন যে ফটোগ্রাফারেরা তাঁর বাচ্চাদের ছবি তুললে ওনার কোনও অসুবিধে নেই, আমরা মনে করি যে মিডিয়ারও জানা উচিত যে লক্ষণরেখাটি কোথায়, যেখানে থামতে হবে।  আপনি কি একমত নন?