সারা এবং ইব্রাহিম তাদের পিসী সোহা আলী খানের শিশুকে অভ্যর্থনা করবার জন্য ভীষণ উত্তেজিত

lead image

বোন সারা আলি খান নীল গাউন পরে নিজেরই একটি ছবি পোষ্ট করেছেন যাতে তাকে দারুণ দেখাচ্ছে। আর কল্পনা করুন যে সোহাকে তাঁর বাচ্চা হবার উপক্রমে সবচেয়ে বেশী যত্ন কারা নিচ্ছে। এরা আর কেউ নয়, সাইফের প্রথম স্ত্রী অমৃতা সিং এর সন্তানেরা।

মনে হচ্ছে, সাইফ আলী খানের পরিবারে এখন দুটি উদযাপন চলছে।

গত বছর সাইফের জন্মদিনে, পরিবারটি করিনার সন্তানকে স্বাগত জানাবার কথা ভাবছিল, আর এবছর এই পরিবার আর একটির আগমনের সম্ভাবনায় দ্বিগুন খুশী কারণ, সোহা তাঁর স্বামী কুনাল কেম্মুর সঙ্গে তাঁদের প্রথম সন্তানলাভের অপেক্ষায় রয়েছেন।

 

#sisterlove❤️❤️❤️#sistersarethebest? #aboutlastnight✨#birthdayfun

A post shared by KK (@therealkarismakapoor) on

জন্মদিন উদযাপনের সময় সাইফের কেক কাটার ছবি তাঁর শ্যালিকা করিস্মা কাপুর পোষ্ট করেছেন, তাতে দেখা যাচ্ছে যে পরিবারের সবার চোখে মুখে আনন্দ উপছে পড়ছে।

বোন সারা আলি খান নীল গাউন পরে নিজেরই একটি ছবি পোষ্ট করেছেন যাতে তাকে দারুণ দেখাচ্ছে। আর কল্পনা করুন যে সোহাকে তাঁর বাচ্চা হবার উপক্রমে সবচেয়ে বেশী যত্ন কারা নিচ্ছে। এরা আর কেউ নয়, সাইফের প্রথম স্ত্রী অমৃতা সিং এর সন্তানেরা।

 

Happy birthday saifu ! ???? #birthdayboy #happybirthday#familytime#familyfirst❤️ aboutlastnight✨

A post shared by KK (@therealkarismakapoor) on

সারা ও ইব্রাহিম উভয়েই শুধু যে সোহার সঙ্গে পোজ দিয়েছে তাই নয়, সারাকে আবার হাসিমুখে তার পিসীর স্ফীত উদরে হাত দেওয়া অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। পরিবারে ঘন মুহূর্তগুলি সুন্দর ফটো তোলার সুযোগ করে দিয়েছে এবং দুই বাচ্চারই তাদের পিসীর সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক তুলে ধরেছে।

যদিও আমরা পরিবারের বর্তমান আকর্ষণ তৈমূরকে কোনও ছবিতে দেখতে পাচ্ছি না, মা করিনাকে চমকপ্রদ পুরো কালো পোশাকে দেখা যাচ্ছে।

 

In august company ! ❤️❤️

A post shared by Soha (@sakpataudi) on

যা দেখে আমাদের ভাল লাগছে তা হল যে সারার পেশা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সাইফ আর তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী অমৃতার মতভেদ সংক্রান্ত খবরের পরও এই সন্তানদ্বয় পুরো যৌথ পরিবারের সঙ্গে বেশ মিলেমিশে আছে। অমৃতা এই চবিগুলিতে অনুপস্থিত কিন্তু তাঁর আদরের বাচ্চারা সে অভাব ভালই পূর্ণ করেছে।

যখন থেকে অভিষেক কাপুরের পরবর্তী সিনেমায় সারার অভিনয় করার খবর চাউর হয়েছে, জিম থেকে শুরু করে সেলুন, যেখানেই সে যায়, সর্বক্ষণ তার ফটো তোলা হয়, সে পাপারাৎজিতে অভ্যস্ত হয়ে গেছে।

অবশ্য সারা জনসমক্ষে আড়ালে থাকতে পছন্দ করে, এটা জেনে ভাল লাগছে যে তরুণী মেয়েটি পারিবারিক সম্বন্ধকে সমান গুরুত্ব দেয়। অতএব, যখন এই পরিবার আরেকটি রাজকীয় আবির্ভাবের প্রতীক্ষায় আছে, আমরা তাঁদের সর্বান্তকরণে শুভেচ্ছা জানাই।

কিভাবে অপেক্ষাকৃত বয়স্ক বাচ্চাদের গুরুত্বপূর্ণ পারিবারিক মুহূর্তগুলিতে জড়িত করা যায়

কৈশোর এমন একটা বয়স যখন সন্তানেরা নিজেরাই নিজেদের সব কাজ করতে চায় আর বাড়ির লোকেদের চাইতে বন্ধুদের বেশী গুরুত্ব দেওয়া শুরু করে। যদিও এটা বড় হওয়ার একটা স্বাভাবিক পর্যায়, কিন্তু এই সময়ই তাদের পারিবারিক ঘটনাক্রমে বিজড়িত করা উচিত যাতে তারা বৃহত্তর পরিবারের সঙ্গে একাত্মবোধ করে।

  • তাদের পরামর্শ নিয়ে অনুষ্টানসূচী বানান : শুধু পারিবারিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে না বলে তাদের পরিকল্পনার অংশীদার করুন। তারা সে্ই নির্দিষ্ট তারিখ ও সময়ে স্বচ্ছন্দ কিনা জানতে চেয়ে তাদের গুরুত্ব দিন।
  • তাদের কাজের দায়িত্ব দিন : তাদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ, যেমন জন্মদিনের কেক বা অতিথি তালিকার ভার দিয়ে দিন যাতে তারা ভাবে যে তারাও পরিবারের অপরিহার্য অঙ্গ।
  • তাদের জন্য স্মৃতি তৈরী করুন : গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানের আ্যলবাম রক্ষণাবেক্ষণের ভারাভার তাদের ওপর অর্পণ করুন এবং তার শিরোনাম দিন স্মরণচিহ্ন। এইভাবে ধীরে ধীরে আপনি তাদের শেখাবেন যে তারাও পরিবারের এই গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার একটি অংশ এবং এর ফলে তারাও ঠিক আপনারই মতো এগুলিকে গুরুত্ব দেবে।