ছবিতে দেখুন- সংরক্ষণশীল নতুন মা রাণী মুখার্জী মেয়েকে এয়ারপোর্টে ঢেকে রাখেন

lead image

এই নতুন মাকে দেখা যায় মুম্বাই এয়ারপোর্টে মেয়ে আদিরা চোপড়ার সাথে যে ফটোগ্রাফরদের দেখে ঘাবড়ে যায়। কিন্তু রাণী ছিলেন শান্ত...

নতুন মা রাণী মুখার্জী এক বছর তার মেয়ে আদিরাকে লাইম লাইট থেকে লুকিয়ে রাখেন, কিন্তু এখন মনে হচ্ছে মর্দানির অভিনেত্রি সেই ব্যাপারে আর চিন্তায় নেই।

তিনি এক বছরের ম্যাটারনিটি লিভের পর আবার কাজে যোগ দিয়েছেন, এবং সম্প্রতি তাকে দেখা যায় এয়ারপোর্টে তার এক বছরের কন্যার সাথে। ৩৯ বছরের এই তারকা ফটোগ্রাফারদের জন্য পোজ করেন, যদিও তার মেয়ে একটু ঘাবড়ে যায় তার প্রতি লোকের এত খাতির ও মনোযোগে।

কিন্তু তবুও সে তার মায়ের দিকে সমানে তাকিয়ে থাকে তার ন্যানির কোল থেকে।

মায়ের থেকে লাইম লাইট কেড়ে নেন আদিরা

src=https://www.theindusparent.com/wp content/uploads/2017/03/rani preg lead.jpg ছবিতে দেখুন  সংরক্ষণশীল নতুন মা রাণী মুখার্জী মেয়েকে এয়ারপোর্টে ঢেকে রাখেন

ফটোর জন্য পোজ করা সেরে রাণী তার মেয়ের সাথে কার্টে চড়ে এয়ারপোর্টে ধুকে যান। ততক্ষণে আদিরা কিন্তু তার মায়ের এই লাইম লাইট কেড়ে নিয়েছে তার পরীর মত চেহারা ও বড় বড় চোখে।

দুজনের এই প্রকাশ্য আবির্ভাবে এটা স্পষ্ট হয়ে গেছে যে এই অভিনেত্রী যে মা হিসেবে তার চ্যালেঞ্জের প্রতি প্রকাশ্য ছিলেন তিনি এবার মেয়েকে এক সাধারন শৈশব দিতে প্রস্তুত।

এই বছর মাদার’স ডে তে তিনি এক বার্তা দেন তার মাকে উৎসর্গ করে, যাতে তিনি জানান যে তিনি চান যে তার মেয়েও সেই সব মধ্যবিত্ত মূল্য গুলি শিখুক যা তিনি শিখে বড় হয়েছেন।

মাতৃত্ব এক মহিমান্বিত জীবন শক্তি

src=https://www.theindusparent.com/wp content/uploads/2017/02/adira and aditya feature 1.jpg ছবিতে দেখুন  সংরক্ষণশীল নতুন মা রাণী মুখার্জী মেয়েকে এয়ারপোর্টে ঢেকে রাখেন

তিনি বলেন,ভালবাসা, শক্তি, স্মবেদনা, সহনশীলতা, আমার মা আমাকে এই সব শেখান। আমি যেন এই সব আমার মেয়েকে শেখাতে পারি। মাতৃত্ব এক মহিমান্বিত জীবন শক্তি। এটা বিশাল এবং ভীতিকর – এটা  এক অসীম আশাবাদ। সব মায়েদের জানায় হ্যাপি মাদারস ডে

এই কয়েকটি শব্দে রাণী খুব ভাল ভাবে তার নিজের যাত্রা ও তার মেয়েকে মানুষ করার প্ল্যান কে সংকলন করেন।

কাভি খুশী কাভি গম এর অভিনেত্রী শোনা যায় দুবাই যাচ্ছিলেন। তিনি ফটোগ্রাফর দের দেখে মোটেই ঘাবড়ানি, যেমন তার স্বামী আদিত্য চোপড়া করেছিলেন যখন আদিরার সাথে তাকে দেখা গেছিল।

কিন্তু সেটা এখন বিগত ব্যাপার।

এনারা আর নিজেরদের মেয়ে কে লুকিয়ে রালহতে চান না।

এটা দেখার ব্যাপার যে এরা কীভাবে তাদের মেয়েকে বড় করেন এত লাইম লাইটের মধ্যে সেই সব গুণ দিয়ে যা রাণী তার মধ্যে গড়ে তুলতে চাইছেন। তিনি যা বলেছেন তাছাড়া এখানে আরও কিছু গুণ দেওয়া রইল যা মা বাবাদের মেয়েকে শেখান উচিত।

৩ ব্যাভারিক মূল্য যা মেয়েকে শেখান উচিত

  • তার চিন্তাধারা গরে তুলুন – আপনার মেয়েকে “সুন্দরি” এবং “কিউট” না বলে, তার বুদ্ধি এবং আবেগের কদর করুন । তার সদয় মনের প্রশংসা করুন, তাকে বলুন আপনি গর্বিত কারন সে সহনশীল এবং সংবেদনশীল। এটা তার চরিত্র গড়ে তুলবে।
  • উন্নতি বেছে নিন – আপনার মেয়েকে শেখান বাস্তব এবং সাধনযোগ্য লক্ষ তৈরি করতে। নিজেকে উদাহরন স্বরুপ রেখে তাকে দেখান যে আপনি আপনার লক্ষ মনে রাখেন ও পুর করেন। তাকে জানান উন্নতি এবং বিকাশ উৎকর্ষতার চ্চেয়ে বেশী দরকারি।
  • ব্যাক্তিস্বাত্রন্ততার আনুপ্রেরনা জানান – সে তার নিজের মত, এই ব্যাপারে তার প্রশংসা করুন। যেহেতু মেয়েরা স্বাভাবিক ভাবে অনুমোদন করতে ভালবাসে তাই তারা “ভাল মেয়ে” জাতিয় প্রশংসা গম্ভিরভাবে নেয়। তাই তাদের এটা শেখান দরকার যে সাহসী হওয়া উচিত এবং সবসময় সামাজিক নিয়ম মেনে চলার কোনও নিয়ম নেই।

Source: theindusparent