চাকুরিরতা মায়েদের জন্য – ২০ টি সহজ রান্নার উপায়

চাকুরিরতা মায়েদের জন্য – ২০ টি সহজ রান্নার উপায়

চাকরি করতে গিয়ে আমরা অনেক সময় চাকরি, বাচ্চা, পরিবার এবং বিবাহ কে সামলাতে নাজেহাল হয়ে উঠি। এই দৌড় ভাগের মধ্যে পছন্দ মতন ডিনার তৈরি করা কঠিন। আর যদি আপনি রান্না ভালবাসেন তবুও রান্না করা অনেক সময় মুশকিল হয়ে ওঠে।

কাজ সেরে ঘরে ফেরার পর আমারা চাই জলদী কিছু রান্না করে নিতে। আমিও রাতে হাল্কা কেহতেই পছন্দ করি।

তাই আপনিও যদি আমার মতন হাল্কা খেতে ভালবাসেন, এই রান্নার পদ্ধতি আপনার খুব কাজে দেবে।

ভারতিয় রান্নার সহজ পদ্ধতি
  • দুধ ফোটানর আগে পাত্রটিকে একটু জলে ভিজিয়ে নিন, এতে দুধ পোড়ার সম্ভাবনা কমে যাবে।
  • আধ চামচ সোডা মেশান দুধ ফতানর সময়। এতে দুধ ফ্রিজে না রাখলেও খারাপ হবে না।

maxresdefault

  • দুধ ফতানর সময় পাত্রের ওপরে একটি কাঠের হাতা রেখে দিন। তবে দুধ উতলে পড়বে না।
  • নরম রুটি বানানো এক কঠিন ব্যাপার। আতা মাখার সময় জলের সাথে একটু দুধ মেশান, তাতে মাখা তা নরম হবে এবং রুটি বেশী সময় অবধি টাটকা থাকবে।
  • লুচি বেলে ফ্রিজে রেখে দিন, এতে লুচি ফুলবে ভাল এবং কম তেল শোষণ করবে।
  • সুজি বানানর সময়, আধ চামচ বেসন দিন সুজি ভাজার সময়। সুজির স্বাদও বাড়বে এবং রঙ ঘন হবে।

potato-pizza-cooking-potatoes-medium

  • আপনি ওজন কমাতে চাইছেন অথচ আলুভাজা আপনা প্রিয়। আলু ভাজার আগে কুচি গুলকে সেদ্ধ করে নিন, তারাতারি কাজ হবে আবার তেলও কম টানবে।
  • আলুর খোসা ছাড়ানো এক বিরক্তিকর ব্যাপার, তার আলু সেদ্ধ করে নিন, খোসা সহজেই বেরিয়ে আসবে।
  • মিক্সিতে একটু নুন দিয়ে মাঝে মাঝে চালিয়ে নিন, ব্লেডের ধার ঠিক থাকবে।
  • যদি ভুল করে খাবারে বেশী নুন দিয়ে ফেলেছেন ঘাবড়াবেন না, এক চামচ দুধ মিশিয়ে দিন, স্বাদ ঠিক হয়ে যাবে। আর যদি ডাল বা ঝোলে জল বেশী হয়ে যায় একটু আলু সেদ্ধ মিশিয়ে দিন, অতিরিক্ত জল শুষে নেবে।
  • মাটন রান্না করার সময় একটু কাঁচা পেপে মাখিয়ে ম্যারিনেড করুন, মাংস জলদী সেদ্ধ হবে।
  • দেড়শ রান্না করার সময় যদি তরকারি খুব চিটচিটে হয়ে যায় একটু লেবুর রস মিশিয়ে দিন, ভাট বেশী গলে গেলেও এই পদ্ধতি কাজে দেয়।
  • পেঁয়াজ ভাজাকে বাদামি করার জন্য একটু বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন, জলদী রঙ ধরবে।
  • আলু ও পেঁয়াজ এক সাথে রাখবেন না, এতে আলু জলদী খারাপ হয়।
  • নুডলস সেদ্ধ করে সাথে সাথে ছেকে নিন এবং ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নিন যাতে নুডলস চিটচিটে না হয়।

Mint-leaves-2007

  • পনির কে তাজা রাখতে, ব্লটিং পেপারে মুড়ে ফ্রিজে রাখুন। পনির রান্না করার আগে একটু গরম জলে ফুটিয়ে নিন পনির নরম থাকবে।
  • একটু হিঙ পুড়িয়ে আঁচারের শিশি তে ভরে দিন তার পর তাতে আচার রাখুন, ছাতা পড়বে না।
  • চাল রাখার পাত্রে এক চত প্যাকেটে বরিচ অ্যাসিড বা পাত্রে একটু পুদিনা পাতা রেখে দিন, সুরুই পোকা ধরবে না।
  • চিনির পাত্রে দু একটা লঙ রাখুন, পিঁপড়ে আসবে না।
  • টম্যাটো নরম হয়ে গেলে এক পাত্রে ঠাণ্ডা জল এবং নুন মেশান, তাতে টম্যাটো গুল এক রাত রাখুন। সকালে দেখবেন আবার তাজা ও মজবুত হয়ে গেছে। টম্যাটোর খোসা ছাড়াতে হলে, টম্যাটো কে গরম জলে ১০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন তার পর খোসা ছাড়িয়ে নিন।

Written by

theIndusparent