কেন আমি আমার মেয়েকে ‘ছোটা ভীম’ এবং অন্যান্য কার্টুন দেখতে দিই না

lead image

আমার চার বছর বয়সী মেয়ের উপর এই ধরনের কাল্পনিক চরিত্রগুলি যে ধরণের প্রভাব বিস্তার করছিল এবং যেভাবে অন্ধের মতো সে তাদের বিশ্বাস করছিল তাতে আমি আশ্চর্য হয়ে গিয়েছিলাম

এই ফেব্রুয়ারীতে, একটি পরিবার হিসাবে আমরা একটি বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে কেবেল সংযোগ কাটিয়ে দিয়ে আপাতত কিছু সময়ের জন্য আমাদের জীবন থেকে টিভিকে নির্বাসন দিয়েছি। গত কয়েক মাস ধরে আমি লক্ষ্য করছিলাম যে আমার মেয়েটি টিভি দেখতে এত বেশি পছন্দ করছিল যে টিভি চালু না থাকলে সে খেতে চাইছিল না।

একজন মা হিসেবে আরেকটি বিষয় আমাকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছিল যে সে এইসব শো-তে সে এত মনোযোগী হয়ে পড়ছিল যে বিজ্ঞাপন বিরতি না হওয়া পর্যন্ত সে তার হিসি-পটি চেপে রাখত! এবং, এই সময়ের অন্যান্য শিশুদের মত সেও এক গ্যাজেট বিশারদ শিশু, কাজেই সে রিমোট দ্বারা টিভি চালনার কলাকৌশলে অনায়াসে পারদর্শী হয়ে উঠেছিল, এমনকি আমি তার জন্য টিভির সুইচ অন করার জন্য  তাকে অপেক্ষা করতে হত না।

আমি খেয়াল করতে শুরু করলাম যে সে তার কার্টুন দেখার জন্য সবকিছু করতে প্রস্তুত - এমনকি পার্কে খেলার জন্য বাইরে যেতেও চাইছিল না। তারপর ছোটা ভীম তার জীবনে এল এবং সে তার মতো শক্তিশালী হবার জন্য লাড্ডু খেতে চাইল। কিন্তু যখন আমি তাকে বললাম যে লাড্ডু তোমাকে মোটেই শক্তিশালী করবে না, সে আমাকে বিশ্বাস করতে চাইল না, যেহেতু "ছোটা ভীম বলেছে"!

অবশ্য আমি এ জাতীয় টিভি শো গুলিতে ইদানিং যে ভয়ঙ্কর ভাষা ব্যাবহার করা হয় সে প্রসঙ্গের গভীরে ঢুকতে চাইছি না! যদিও আমার কন্যাটি "অ্যাই লড়কি", "বত্তমীজ", "বেওকুফ" গোছের শব্দমালা ব্যাবহার করা শুরু করেছে এবং এমন কিছু শব্দ, যা আমরা এমনিতে বাড়িতে ব্যবহারই করি না!
GIRL

বলা বাহুল্য, আমার চার বছরের কন্যাটির ওপর এইসব কাল্পনিক চরিত্রদের প্রভাব এবং যেরকম অন্ধভাবে সে তাদের বিশ্বাস করছে, তা দেখে আমি হতচকিত হয়ে পড়ি। তার কাঁচা মন এমন কিছু বিশ্বাস করছিল যা বাস্তব নয় এবং এটি আমার কাছে এক বিশাল আঘাত রূপে এসেছিল!

আমি এতে লাগাম কষার সিদ্ধান্ত নিয়ে নিই। কাল্পনিক চরিত্ররা আমার কন্যার জীবন অধিকার করে বসবে এবং তাকে প্রভাবিত করবে, এটা আমি হতে দেব না। এবং আমি অবশ্যই বলব, এটি একটি ভাল সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে - অন্তত এখনও পর্যন্ত যা মনে হচ্ছে।

প্রথম কয়েকটি সপ্তাহ …

এ কথা অবশ্যই বলতে হবে যে প্রথম কয়েক সপ্তাহ ছিল ভয়ানক। আমরা ডে-কেয়ার থেকে তাকে তুলে বাড়ি আসতাম আর সে কার্টুন দেখার বায়না করত এবং অবশেষে কান্নাকাটি! প্রথম প্রথম তাকে বুঝিয়ে সুঝিয়ে অন্য কিছু করানো খুবই কঠিন কাজ ছিল, তারপর ধীরে ধীরে সে এটি মেনে নেওয়া শুরু করে।

এরপর ধীরে ধীরে আমি তাকে তার পছন্দমত যে কোনও একটা কাজ করার কথা বললাম যেমন, কোনও বই পড়া বা খেলনা নিয়ে খেলা অথবা রান্নাঘরে বা লিভিং রুমে আমার সাথে বসে তার দিনটি কেমন কাটল তা নিয়ে আমার সঙ্গে আলোচনা করা।

অবশ্যই, এ সব নিজে নিজে ঘটে না। আমাকে প্রথমে তার সঙ্গে আমার দৈনন্দিন কার্যক্রম নিয়ে বলতে হয়েছে এবং তারপর সে খোলামেলা হতে শুরু করে এবং, আমি এমন একটি জগতে প্রবেশ করলাম যা আমার অজানা ছিল।

সে তার বন্ধুদের সম্পর্কে গল্প বলা শুরু করল এবং তার এক বন্ধুর সাথে কিভাবে তার খুব প্রিয় হয়ে উঠেছে সে ব্যাপারে এবং তার সম্পর্কে অবিরাম কথা বলে চলল। তারপর সে যে শিক্ষকদের পছন্দ করে তাঁদের কথা বলল এবং কেন এটা পছন্দ করে না, "যখন আমি ঠিক সময়ে ডেকেয়ার থেকে তাকে নিয়ে আসি না", - সে কথাও আমাকে বলল।

তারপর এল অদৃশ্য পোষ্যরা ....

সে প্রায়ই বলে যে সে তার ক্লাসে "লিডার অফ দা ডে" বা দিনের নেতা হওয়া সত্যিই পছন্দ করে এবং কিভাবে তাকে ডে-কেয়ারের ছোট্ট শিশুদের দেখভাল করতে হয় কারণ তারা "সত্যিই খুব ছোট"। আবার, তার নাকি কিছু অদৃশ্য পোষা প্রাণী আছে যাদের সে যত্ন আত্তি করে "কিন্তু এটি একটি গোপন কথা এবং শুধুমাত্র তার মা এ ব্যাপারে জানতে পারে"।

mother and daughter

এইসব কথোপকথন আমার জন্য চক্ষু উন্মূলণকারী ছিল এবং আমি প্রায়ই আমার গলায় একটি দলা অনুভব করতাম। আমার ছোট্ট মেয়েটি এত ভাবপূর্ণ কথা এত গুছিয়ে বলতে পারে দেখে এবং আমাকে বলার এত গল্প এতদিন তার মনের পেছনে পড়েছিল দেখে বিস্মিত হয়েছিলাম ! আর টিভিই এর কারণ ছিল!  

আমরা ডাইনিং টেবিলে আরো বেশি সময় কাটাতে শুরু করেছিলাম এবং আমি জানতে পেরেছিলাম যে সে "পিনাট বাটার, পনির, পরিজ, ঢ্যাড়স, ছোলা, রাজমা এবং পরোটা" খেতে খুব ভালবাসে। আমরা দীর্ঘসময় ধরে, পছন্দের খাবার খাওয়া শুরু করেছি এবং একটি পরিবার হিসাবে আরও ঘনিষ্ঠ হয়েছি। এতো সব গল্পগাছার পরেও আ্মাদের এখন বই পড়ার বা মাঝে মাঝে আইপ্যাডে পার্টনার গেম খেলার বা কিছুই না করে শুধু বিছনায় গড়িয়ে আদর, যত্ন ও আনন্দ নেবার অঢেল সময়।

টিভি এত সময় নাশা

ধীরে ধীরে আমি দেখেছি যে আমার মেয়েটি আগের চেয়ে সুখী ও সুবক্তা হয়ে উঠেছে। এই প্রক্রিয়া থেকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে উপলব্ধি হল তা এই যে টিভি একটি সময় নষ্ট করার উপকরণ। আমরা কখনো জানতাম না যে আমাদের হাতে এতখানি সময় আছে এবং আমরা তা এমন একটি কাজে নষ্ট করছিলাম যা আমাদের কিছুই দিতে পারছিল না। আর যখন আমি আমার কন্যাকে ইউটিউবে আরও ভাল পেপ্পা পিগ, অ্যানিমেটেড গান এবং সিনেমা দেখাতে পারি, তখন আমি আর কেবল কন্ট্রাক্টটি রিনিউ করছি না! আপনারও করা উচিত নয়!

Source: theindusparent