এই ৬ টি প্রশ্ন আপনার বাচ্চাকে জিজ্ঞাসা করবেন না

lead image

একই প্রশ্ন বার বার, বারংবার জিজ্ঞাসা করতেই থাকলে শিশুটির ওপর চাপ পড়ে ফলে তারা একটি জবাব দিতে বাধ্য হয় ঠিকই, কিন্তু সে জবাব তাদের সঙ্গে দীর্ঘদিন থেকে যায়।

এই তো গতকাল, আমার এক বন্ধু বলল যে সে তার মেয়েকে পাড়ার এক ফোনেটিক্স ক্লাসে ভর্তি করেছে। যখন আমি তাকে জিজ্ঞাসা করলাম যে তার মেয়ের এই বাচনিক ক্লাস ভাল লাগছে কিনা, তাতে সে বললে, "ওর ভালো লাগছে কিনা তাতে কিছু যায় আসে না। আমি মনে করি এটা জরুরি যে এই বিষয়ে ও প্রাথমিক জ্ঞান লাভ করুক"

আমি তার সাথে একমত না হয়েও, বুঝতে পেরেছি যে আমাদের মতো সব বাবা মা এমন কিছু কাজ কখনো না কখনো করে। এটা মেনে নেওয়াই ভালো যে ভারতীয় বাবা-মা অন্য শিশুদের সঙ্গে নিজের বাচ্চার তুলনা করে, তার ওপর মতামত চাপিয়ে দেয় এবং যা আমরা চাই তা করতে আমাদের বাচ্চাদের আমরা বাধ্য করি। একদম শুরু থেকে আমাদের এই দৃষ্টিভঙ্গি থাকে, যখন ছোট্টো শিশুগুলি তাদের নিজের জগতের সবকিছু বোঝার জন্য আকুল হয়ে থাকে।

তদুপরি, প্রায়ই আমরা ভুলে যাই যে আমরা যা কিছু করি আমাদের বাচ্চারা তা দেখে আর অনুকরণ করে। একই প্রশ্ন বার বার, বারংবার জিজ্ঞাসা করতেই থাকলে শিশুটির ওপর চাপ পড়ে ফলে তারা একটি জবাব দিতে বাধ্য হয় ঠিকই কিন্তু সে জবাব, তাদের সঙ্গে দীর্ঘদিন থেকে যায়। আপনি যা যা চান, তাই করতে করতে তারা নিজেদের স্বাতন্ত্র্য হারিয়ে ফেলে।

এই প্রশ্নগুলি বাচ্চাদের কখনোই করবেন না -

১। বড় হয়ে কী হতে চাও?

বাচ্চাকে এই প্রশ্নটি করার জন্য আমরা সবাই দোষী!  এমন নয় যে প্রশ্নটা ভুল, কিন্তু আমার দৃঢ় বিশ্বাস, অবোধ শিশুটি যে উত্তরটি দিয়ে ফেলে এবং তাতে যে প্রতিক্রিয়াটি আপনি প্রকাশ করে ফেলেন - সেখানেই যত গণ্ডগোল! ধরুন, আপনার বাচ্চাটি বলে দিল যে সে একজন মডেল বা অভিনেত্রী হতে চায়, আপনার একটি নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া হতে পারে, হয়ত নিষেধ করবেন এমনকি শিশুটিকে বকতেও পারেন।

কিন্তু, সে যদি বলে দেয়, ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার বা আপনি যা চান সেরকম কিছু তাহলে হয়ত আপনি আনন্দে লাফ পাড়বেন। এইভাবে, আপনার মনের মতো উত্তর দেবার জন্য শিশুটির মনে এক ধরনের বাধ্যবাধকতা জন্মায় আর সে বেচারা বিভ্রান্ত হয়ে পড়ে। সেইসঙ্গে, তাকে সবকিছু নিজে খতিয়ে দেখে সে যা হতে চায় তা আবিষ্কার করা থেকে তাকে বিরত করা হয়। ফলে,সে হয়তো নিজের বাসনা বিসর্জন দিয়ে আপনার বাসনার পেশাকে বেছে নেবার জন্য প্রস্তুত হতে বাধ্য হয়!
fix your kids

২। কাকে তুমি বেশি ভালবাসো?

আপনার ছোট্ট বাচ্চাটিকে এ প্রশ্ন কতবার করেছেন - "কাকে, বাবাকে না মাকে?", "দাদুকে না ঠাকুরদাকে?", "পিসিকে না মাসিকে?" একে না ওকে - তুলনা করার জন্য জোড়া অনন্ত কিন্তু ঘটনা হচ্ছে যে এই প্রশ্নটি শিশু মনে আমাদের সম্বন্ধে পূর্বধারণা গড়ে তোলে, ফলে আপনাকে খুশী করার জন্য সে আর মনের কথা বলে না জার জন্য দায়ী আপনি! এছাড়া, আপনি আপনার বাচ্চাকে কেন বাবা আর মায়ের মধ্যে একজনকে বাছতে বলেন? আপনি কি চাননা যে শিশুটি দুজনকেই সমান ভালবাসুক? অন্যদের ব্যাপারেও, একটি শিশুকে সর্বদা সবাইকে সমান ভালবাসতে শেখানো উচিত, ঠিক কি না?

৩। কেন তুমি তোমার বন্ধুর মত হতে পারছ না?  

আমরা প্রায়ই ভুলে যাই যে আমরা যারা আমাদের বাচ্চাদের ব্যক্তিত্ব গড়ে তুলছি। তাকে এই প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করার মানে, সে যেন নিজের স্বাতন্ত্র্য হারিয়ে অন্য একজনের মতো হয়ে ওঠে! আমি অবশ্য ভবিষ্যতের কথা বলছি আর আপনি বলতে পারেন যে আরও অনেক কিছু আছে যা একটি শিশুর ব্যক্তিত্ব গড়ে তোলে কিন্তু ভুলে যাবেন না যে তার ভবিষ্যতের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত হয় আজ - সে প্রাপ্তবয়স্ক হবার পরে নয়!

৪। নিজের খাবার তাড়াতাড়ি শেষ করতে পারো না কেন?

আমরা সব মা একদিকে বলে বেড়াব যে আমার বাচ্চাটা একদম খায়না আবার তাকে বলব তাড়াতাড়ি খেয়ে শেষ করতে। আপনার বাচ্চাকে খেয়ে শেষ করার মতো যথেষ্ট সময় দিন আর মনে রাখবেন যে সব শিশু তাড়াতাড়ি খাবার খেতে পারে না। তাছাড়া, খাওয়াটা আপনার বাচ্চার কাছে আনন্দের ব্যাপার হতে দিন!

৫। কেন তাড়াতাড়ি করছ না?  

আমি জানি যে এ দৈনন্দিন কাহিনীর সঙ্গে আমরা প্রায় সবাই পরিচিত। সময়ে অফিস পৌঁছাতে হবে, অথচ দেরী হয়ে গেছে কিংবা সময়সীমা ঘটিত দুশ্চিন্তা অথবা ৮ টা ৩৫ এর ট্রেন মিস করতে পারি কিন্তু এইসব পাগলামির মধ্যে আমরা ভুলে যাই যে আমাদের ছোট্ট সোনাটির তার নিজস্ব একটি সুন্দর ভূবন আছে আর সেখানে কোনও ব্যস্ততা নেই - তাদের পৃথিবী সরল আর সেখানে অনেক সময়! তাই অনেক ভাল হয় যদি আমরা আরেকটু সকাল থেকে শুরু করি আর আমাদের বাচ্চাকে আরও ১০ মিনিট সময় দিই যাতে সে যা করছে সেটা শেষ করতে পারে। মনে রাখবেন যে এরা নেহাতই শিশু - তারা তাদের শৈশবের প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করুক!

৬। কেন তোমার এটা ভাল লাগছে না?

আপনি চাইছেন যে আপনার মেয়ে দোকান থেকে কিনে আনা নোতুন পোষাকটি পরুক অথচ সে জিদ করে আছে যে তার প্রিয় জিনস টিশার্ট পরবে। আপনি কি করবেন? আপনি যে কোনও উপায়ে তাকে বোঝাবেন যে তার পছন্দটি ভুল এবং আর একবার তাকে নিজে পছন্দ করার স্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত করবেন ও সে যা করতে চায় তা করতে দেবেন না!

আমার কি মনে হয় আরও কোন প্রশ্ন এই তালিকাতে যোগ করা উচিত? জানান আমাদের!

Source: theindusparent