আপনার স্ত্রী'র মানসিক চাপের এগুলিই আসল কারণ !

আপনার স্ত্রী'র মানসিক চাপের এগুলিই আসল কারণ !

আপনি সর্বদা আপনার স্ত্রী'কে পর্যবেক্ষণ ও বিচার করেন এবং সবকিছুর জন্য তাঁকেই দোষারোপ করেন কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন যে কেন আপনার স্ত্রী সর্বদা মানসিক চাপে থাকে?

ধরুন, আপনি সদ্য অফিস থেকে ফিরে ভাবছেন এবার বৌ এর সঙ্গে বসে এক কাপ চা খাবেন আর আপনি দেখলেন যে সে গোমড়া মুখে শুধু আপনাকে চা দিল কিন্তু আপনার সাথে কথা বলার বিন্দুমাত্র ইচ্ছে তার নেই - তখন আপনি কি করেন? আপনি কি ভাবেন যে সে কেন এত চাপে রয়েছে? না, শুধু আপনি তাকে শোনান, "সব সময় তোমার মুখ ভার হয়ে থাকে"। কখনও কি ভেবে দেখেছেন যে হয়তো তার মুখ ভারের এটাও একটা কারণ? আপনার স্ত্রী'র সর্বক্ষণের মানসিক চাপের অন্যান্য কারণগুলি এখানে দেওয়া হল!

1. তাঁর সবকিছুই আপনার বিচারযোগ্য!

bad helper

তিনি বেচারা দিন রাত দৌড়ে বেড়াচ্ছেন! সকালে বাচ্চাকে ওঠানো, রেডি করে স্কুল পৌঁছান, সেই সঙ্গে নিজের কাজের জায়গার দায়িত্বও নিয়ন্ত্রিত রাখতে হয়। কিন্তু যে মুহূর্তে আপনার মনে হয়, ঘরটি আগোছাল কিংবা একটা টেবিল ক্লথ ময়লা, সঙ্গে সঙ্গে স্ত্রীকে দোষারোপ এবং মধুরবানী, ঘর দেখার আর পরিবারের দেখাশোনা করার সময় তাঁর নেই!

একবারের জন্যও কি আপনার মনে হয়না যে এগুলো আপনারও দায়িত্ব? যদি মনে হয়, তাহলে এসবের জন্য তাঁকে দোষ দেন কেন?

২। না ছুটে উপায় নেই

বাচ্চাকে স্কুল পাঠানো হোক বা ঘরের কাজ, রান্না-বান্না, - তা সে শ্বশুর-শ্বাশুড়ি সহ বড় পরিবার হোক বা আজকালের অণু পরিবার - এ হল তাঁর, একমাত্র তাঁরই সম্পূর্ণ দায়িত্ব! আপনি কি কখনও তাঁকে সাহায্য করেন বা ভরসা জোগান? ৩। ঘুমানোর সময় নেই ভারতীয় স্ত্রীদের কাছে প্রতিটি দিনই সমান আর বাচ্চারা এসে গেলে তো বিন্দুমাত্র সময় থাকে না যে একঘন্টা বেশী ঘুমাবেন অথবা দুপুরে একটু গড়িয়ে নেবেন এমন কি রাত্র বাচ্চার ঘুম ছুটে গেলে বা শরীর খারাপ হলে তাঁকেই জেগে বসে থাকতে হয়। নোতুন মা হলে তো সারারাত জেগে থাকতে হয়।  এরকম পরিস্থিতিতে আপনি কি কখনও তাঁকে এক ঘণ্টা ঘুমাতে দিয়েছেন বা তাঁকে বিশ্রাম দিয়ে বাচ্চার কাছে বসে নিজে জেগেছেন?

আপনার স্ত্রী'র মানসিক চাপের অন্যান্য কারণ জানতে হলে পরবর্তী পৃষ্ঠায় পড়ুন

3. তিনি চান যে আপনি তাঁকেও শুনুন

যদিও আপনি সব কিছুর জন্য স্ত্রী'র কাজের বিচার এবং তাঁর ওপর দোষারোপ করতে অভ্যস্ত, আপনি কি কখনো সময় নিয়ে ধৈর্য সহকারে ওঁর বিপন্নতার কারণ জানতে চেয়েছেন? হয়ত, সন্তান পরীক্ষায় কম নম্বর পেয়েছে বা তাঁর শ্বাশুড়ি মাতা খোঁটা দিয়ে কথা শুনিয়েছে কিংবা সারাদিন তাঁর খুব খাটুনি গেছে!

শুধু একবার তাঁকে শান্ত হোয়ে বসতে বলুন, তাঁর জন্য এক কাপ চা করে নিয়ে আসুন আর মন দিয়ে শুধু শুনুন যে সারাটা দিন তাঁর কেমন ভাবে কাটল। তিনি এসবই জানাতে চান এবং বিশ্বাস করুন - শুধুমাত্র শোনার জন্য তিনি আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাবেন।

4. তিনিও মনোযোগ চান

নারীরা মা, স্ত্রী, কন্যা এবং পুত্রবধুর ভূমিকায় কখনও কখনও এত নাজেহাল হয়ে পড়েন যে তাঁদের জন্য সামান্য অবকাশ আর সপ্রেম মৃদু মনোযোগ খুবই প্রয়োজনীয় হয়ে পড়ে। এটুকু বুঝলেই যথেষ্ট যে একটি বাচ্চার মতো আপনার স্ত্রীও মাঝে মাঝে একটু আদর চাইতেই পারে এবং একজন স্বামী হিসেবে যদি আপনি তাঁকে কছুক্ষণ মালিশ করে দেন বা একটা দিন তাঁকে নিয়ে কোথাও ঘুরে আসেন, তাতে তো ক্ষতি কিছু নেই বরং আপনারও ভাল লাগেবে!

Source: theindusparent

 

Any views or opinions expressed in this article are personal and belong solely to the author; and do not represent those of theAsianparent or its clients.